• ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২১ ইং , ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ২৯শে রবিউস-সানি, ১৪৪৩ হিজরী

ভারতে দাম কমল পেট্রোল-ডিজেলের

ভয়েস অফ বাংলাদেশ
প্রকাশিত নভেম্বর ৪, ২০২১
ভারতে দাম কমল পেট্রোল-ডিজেলের

নিউজ ডেস্কঃ

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার পেট্রোল এবং ডিজেলের ওপর আরোপিত আবগারি শুল্ক কমিয়েছে। বৃহস্পতিবার দেশটির কেন্দ্রীয় জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের দেওয়া বিবৃতি অনুযায়ী, প্রতি লিটার পেট্রোলে শুল্ক কমানো হয়েছে ৫ রুপি এবং লিটারপ্রতি ডিজেলে শুল্ক কমানো হয়েছে ১০ রুপি।

সরকারি শুল্ক হ্রাস করার ফলে স্বাভাবিকভাবেই দেশটির খুচরা বাজারে কমবে পেট্রোল-ডিজেলের দাম। আসন্ন দীপাবলী উৎসব উপলক্ষ্যে জনগণের প্রতি ‘উপহার’ হিসেবে শুল্ক হ্রাসের এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভিকে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা।

 

আবগারি শুল্ক কমানোর পাশাপাশি কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে রাজ্য সরকারদের এই মর্মে আহ্বান জানানো হয়েছে- ক্রেতাদের ওপর চাপ কমানোর স্বার্থে পেট্রোল ও ডিজেলের ওপর আরোপিত মূল্য সংযোজন করও (ভ্যাট) যেন কমানো হয়।

ভারতে ২০১৯ সাল থেকে বাড়ছে পেট্রোল ও ডিজেলের দাম। ২০১৯ সালে প্রথমবার পেট্রোলের দাম লিটার প্রতি বাড়ে ২৬ রুপি। পরের বছর ২০২০ সালে তা আরো বেড়ে পৌঁছায় ৩৪ রুপিতে।

একই সময়ে, ২০১৯ সালে লিটারপ্রতি বাড়ে ২৫ রুপি এবং পরের বছর তা আরও বেড়ে পৌঁছায় ২৯ দশমিক ৫ রুপিতে।

কেন্দ্রীয় সরকারের এই নতুন পদক্ষেপের পর ভারতের খুচরা বাজারে প্রতি লিটার পেট্রোল ও ডিজেল কত দামে বিক্রি হবে, তা অবশ্য জানাতে পারেনি এনডিটিভি।

 

তবে সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, ভারতের বিরোধীদলীয় নেতা রাহুল গান্ধীর তীব্র সমালোচনার পরই শুল্ক কমানোর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।

সাম্প্রতিক এক টুইটবার্তায় রাহুল গান্ধী বলেন, পেট্রোল-ডিজেলের ওপর অতিরিক্ত শুল্ক আরোপ করে কেন্দ্রীয় সরকার দেশজুড়ে ‘কর চাঁদাবাজি’ করছে। সরকারকে ‘পকেটমার’ বলেও টুইটবার্তায় উল্লেখ করেন রাহুল।

কৃষি অর্থনীতিভিত্তিক ভারতের বিস্তীর্ণ এলাকার কৃষিকাজ সেচ নির্ভর। পেট্রোল-ডিজেলের ওপর সরকারি শুল্কহ্রাসের ফলে দেশটিতে সবচেয়ে বেশি উপকৃত হবেন কৃষকরা।