শ্রীলঙ্কাকে হারানোর পর থেকেই ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে স্বপ্ন দেখা শুরু। কোচ, খেলোয়াড়, সাপোর্ট স্টাফ দলের প্রত্যেক সদস্যের করা স্বপ্নের একক ছকগুলো শেষবিন্দুতে মিলছে অভিন্ন এক চাওয়ায়- ভারতকে হারাতে হবে। আগামীকাল সোমবার ভারতের বিপক্ষে লড়বেন জামাল-তপুরা। মালদ্বীপের রাজধানী মালের রাশমি ধান্দু স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৫টায়।

ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে সুযোগ কাজে লাগাতে চায় জামাল ভূঁইয়ার দল। ম্যাচের একদিন আগে এমনটাই জানালেন জ্বর থেকে সেরে ওঠা মিডফিল্ডার সোহেল রানা।

ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে সোহেল রানা বলেন, ‘প্রথম ম্যাচটা আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। কোচ, খেলোয়াড়-আমরা সবাই বলে আসছিলাম, আমরা যেন ওদের বিপক্ষে জিতে সাফ শুরু করতে পারি। সেটা করতে পেরেছি। প্রথম ম্যাচ জয়ের অর্থ হচ্ছে শুরুতে টুর্নামেন্টে ভালো একটা অবস্থানে থাকা। ভালো শুরু হওয়ায় ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে আমাদের খেলোয়াড়দের আত্মবিশ্বাস আরও ভালো থাকবে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে যে মিসগুলো করেছি, ভারতের বিপক্ষে এত সুযোগ পাব না কিন্তু যেটাই পাব, সেটাই কাজে লাগাতে হবে।’

টুর্নামেন্ট শুরুর চাপ কেটে গেছে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয় পাওয়ায়। লিগের পরের ম্যাচগুলো গুছিয়ে খেলতে পারবে বলে মনে করেন ম্যানেজার রুপু, ‘যে কোন টুর্নামেন্টে একটা ভালো শুরু প্রয়োজন হয়। শুক্রবার আমরা সেটা পেয়ে গেছি। পুরো তিন পয়েন্ট রয়েছে ঝুলিতে। দলের ফোকাস এখন ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ ঘিরে। বিশ্বকাপ বাছাই টুর্নামেন্টে ভারতের কাছে আমরা হেরেছি। ছেলেরা চায় সাফে ভারতকে হারিয়ে তিন পয়েন্ট নিতে। সে জন্য পুরো দল কাজ করছে। কোনো সময় নষ্ট না করে গতকাল সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত অনুশীলন করেছে। আমার বিশ্বাস, পরের ম্যাচে আমরা ভালো খেলতে পারব।’

দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবল পরাশক্তি ভারতকে হারাতে হলে সামর্থ্যের শেষ বিন্দু দিয়ে খেলতে হবে। গুঁড়িয়ে দিতে হবে সুনীল ছেত্রির আক্রমণ পরিকল্পনা। যে সুনীল জুনে বিশ্বকাপ বাছাই টুর্নামেন্টে দুই গোল করে পরাজয়ের স্বাদ দিয়েছিল জামালদের। লাল-সবুজের লাল রংটি কাল প্রতিশোধের গনগনে আগুনে রূপ নিলেই হয়।