• ২রা ডিসেম্বর, ২০২১ ইং , ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ২৭শে রবিউস-সানি, ১৪৪৩ হিজরী

কানের লালগালিচায় আলো কেড়েছেন বাঁধন

ভয়েস অফ বাংলাদেশ
প্রকাশিত জুলাই ১০, ২০২১
কানের লালগালিচায় আলো কেড়েছেন বাঁধন
নিউজ ডেস্কঃ কান উৎসবের লালগালিচা মাতালেন অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন। তার অপরূপ চোখধাঁধানো সৌন্দর্যে উদ্ভাসিত হলো সাগরপাড়। কাঁধখোলা ছাইরঙা গাউনে তাকে দেখতে মনোমুগ্ধকর ও জমকালো লেগেছে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে যেন বাংলাদেশি সৌন্দর্যের বিজ্ঞাপন হয়ে উঠলেন তিনি।

দক্ষিণ ফরাসি উপকূলে কান উৎসবের ৭৪তম আসরে মূল প্রতিযোগিতা বিভাগে থাকা ‘দ্য ডিভাইড’ ছবির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার উপলক্ষে লালগালিচায় হেঁটেছেন বাঁধন। অপূর্ব এই বাঙালি রূপসীর দ্যুতি ছড়িয়েছে চারপাশে। আলোকচিত্রীদের ক্যামেরায় তাকিয়ে ভক্তদের উদ্দেশে চুম্বন উড়িয়ে দিয়েছেন ‘লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার’ সুন্দরী।

৯ জুলাই স্থানীয় সময় রাত ৯টা ৪০ মিনিটে পালে দে ফেস্টিভাল ভবনের সামনের চত্বরে ঝা-চকচকে গাড়িতে চড়ে আসেন ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ ছবির কলাকুশলীরা। গাড়ি থেকে নেমে কিছুক্ষণ লালগালিচার শুরুর প্রান্তে দাঁড়িয়ে থাকেন তারা। মাইক্রোফোনে জানানো হয়, এবার লালগালিচায় ‘রেহানা মরিয়ম নূর’-এর সময়। তখন জানানো হয়, কানের অফিসিয়াল সিলেকশনের অংশ হিসেবে আঁ সার্তে রিগা বিভাগে প্রদর্শিত হয়েছে ছবিটি।

এরপর একে একে উচ্চারণ করা হয় পরিচালক আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ, প্রযোজক জেরেমি চুয়া, নির্বাহী প্রযোজক এহসানুল হক বাবু, চিত্রগ্রাহক তুহিন তামিজুল, প্রোডাকশন ডিজাইনার আলী আফজাল উজ্জল, শব্দ প্রকৌশলী শৈব তালুকদার ও কালারিস্ট চিন্ময় রয়ের নাম।

সাদের হাত ধরে লালগালিচায় এগিয়েছেন বাঁধন। ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ ছবিতে জটিল জীবনযাপন করা এবং যৌন হয়রানির বিরুদ্ধে লড়াই করা একজন দৃঢ় মানসিকতার নারীর চরিত্রে তার অভিনয় প্রশংসিত হয়েছে সারাবিশ্বের গণমাধ্যমে। রূপে-গুণে বিশ্ব চলচ্চিত্রের সম্মানজনক আয়োজনে আলো কেড়েছেন তিনি।

কানে জেডব্লিউ ম্যারিয়ট হোটেলে উঠেছেন বাঁধন। একই হোটেলে আছেন সাদ। তবে আজ অন্যদের সঙ্গে তারাও একটি ভাড়া অ্যাপার্টমেন্টে উঠবেন বলে জানিয়েছেন বাঁধন।

গত ৭ জুলাই পালে দে ফেস্টিভাল ভবনের সাল দুবুসি প্রেক্ষাগৃহে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ ছবির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হয়েছে। সেদিন প্রদর্শনী শেষে দর্শকরা দাঁড়িয়ে অভিবাদন জানান সাদসহ সবাইকে। পরদিন পালে দে ফেস্টিভাল ভবনের ছাদবারান্দায় ফটোকলে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের আলোকচিত্রীদের সামনে দাঁড়িয়েছেন সাদ, বাঁধন, জেরেমি চুয়া এবং এহসানুল হক বাবু। আয়োজকদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে তাদের তিনটি স্থিরচিত্র প্রকাশিত হয়েছে।

সাল দুবুসিতে গত ৮ জুলাই ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ আবার দেখানো হয়। এদিনও ১ হাজার ৬৮ আসনের প্রেক্ষাগৃহটি পরিপূর্ণ ছিলো দর্শকে। প্রদর্শনী শেষে সবাই ছবিটির ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। এরপর কান শহরের মাল্টিপ্লেক্স ‘সিনেয়ুম অরা’য় এর আরেকটি প্রদর্শনী হয়েছে। এখানেও বেশ উৎসাহ নিয়ে ছবিটি দেখতে সমবেত হন দর্শকরা।

ফ্রান্স, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন গণমাধ্যমে এখন ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ বন্দনা চলছে। ছবিটি নিয়ে ইতিবাচক পর্যালোচনা প্রকাশিত হয়েছে। কানে আসা বিভিন্ন দেশের চলচ্চিত্র বোদ্ধারা তাদের ভালোলাগার কথা জানিয়েছেন। রেহানা চরিত্রে আজমেরী হক বাঁধনের অভিনয় এবং পরিচালক সাদের গুনগান গেয়েছেন তারা।

৭৪তম কানের আঁ সার্তে রিগায় ‘রেহানা মরিয়ম নূর’সহ প্রতিযোগিতা করছে ২০টি ছবি। আগামী ১৬ জুলাই পুরস্কার বিতরণ করবেন এই বিভাগের বিচারকদের প্রধান ব্রিটিশ নারী নির্মাতা আন্দ্রেয়া আর্নল্ড।

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১