• ২৫শে জুন, ২০২১ ইং , ১১ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৫ই জিলক্বদ, ১৪৪২ হিজরী

এবার চতুর্থ দফা লকডাউন দেয়া হলো ভিক্টোরিয়াতে

ভয়েস অফ বাংলাদেশ
প্রকাশিত মে ২৭, ২০২১
এবার চতুর্থ দফা লকডাউন দেয়া হলো ভিক্টোরিয়াতে

নিউজ ডেস্কঃ  করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আবারও বেড়ে যাওয়ায় অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় জনবহুল রাজ্য ভিক্টোরিয়ার রাজধানী মেলবোর্ন লকডাউন করছে সরকার। আজ বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে এই লকডাউন কার্যকর হবে। এ নিয়ে চারবারের মতো লকডাউন করা হলো এই এলাকা। খবর বিবিসির।

মেলবোর্নে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৬ জন। ওই ব্যক্তিরা সেখানকার ১৫০ এলাকায় ঘুরে বেড়িয়েছেন। কর্তৃপক্ষ আশঙ্কা করছে, ওই সব এলাকায় যাতায়াত করা ব্যক্তিরা আক্রান্ত হতে পারেন। তাই লকডাউনের মতো পদক্ষেপ নেওয়া হলো। সাত দিনের জন্য এই লকডাউন কার্যকর হচ্ছে।

ভিক্টোরিয়ায় গত বছর হঠাৎ সংক্রমণ বেড়ে গিয়েছিল। করোনার দ্বিতীয় ওই ধাক্কা সেখানে ব্যাপক আকার ধারণ করেছিল। বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, ওই ধাক্কায় ভিক্টোরিয়ায় আক্রান্ত হয়েছিলেন ২০ হাজারের বেশি মানুষ। আর মারা গিয়েছিলেন ৮২০ জন, যা দেশটির মোট সংক্রমণের ৭০ শতাংশ। ভিক্টোরিয়া সংক্রমণের ওই ধাক্কা সামাল দিতে ১১২ দিন লকডাউন কার্যকর রেখেছিল। এরপর সেখানে সংক্রমণ শূন্যে নেমে আসে।

করোনাভাইরাসের সার্বক্ষণিক তথ্য সরবরাহকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারসের দেওয়া তথ্য অনুসারে, অস্ট্রেলিয়ায় মোট সংক্রমণ ৩০ হাজারের বেশি। মারা গেছেন ৯১০ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ২৯ হাজারের বেশি। দেশটিতে আজ নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ জন। বলা হচ্ছে, নতুন যে সংক্রমণ শুরু হয়েছে, তা গত বছরের তুলনায় বেশি।

ভিক্টোরিয়া সরকারের ভারপ্রাপ্ত প্রধান জেমস মেরলিনো বলেন, দ্রুত যেভাবে ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়াচ্ছে, তা ঠেকাতে এই লকডাউন দেওয়া জরুরি ছিল। সেখানকার পরিস্থিতি উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘করোনার সংক্রমণের যে রেকর্ড রয়েছে, তার থেকে দ্রুত ছড়াচ্ছে এবারের সংক্রমণ।’

জেমস মেরলিনো বলেন, ‘যাঁরা সংক্রমিত হয়েছেন বিভিন্ন সময়, তাঁদের সংস্পর্শে এসেছেন—এমন ব্যক্তির সংখ্যা প্রায় ১০ হাজার। ভিক্টোরিয়ায় দেড় শ স্থানে আক্রান্ত ব্যক্তিরা ঘুরেছেন। আমাদের এখনই ব্যবস্থা নেওয়া দরকার ছিল।’