• ২৫শে জুন, ২০২১ ইং , ১১ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৫ই জিলক্বদ, ১৪৪২ হিজরী

জেফ বেজোসকে টপকে বিশ্বের শীর্ষ ধনী বার্নার্ড আর্নল্ট

ভয়েস অফ বাংলাদেশ
প্রকাশিত মে ২৬, ২০২১
জেফ বেজোসকে টপকে বিশ্বের শীর্ষ ধনী বার্নার্ড আর্নল্ট

নিউজ ডেস্কঃ  জেফ বেজোসকে টপকে বিশ্বের শীর্ষ ধনীর তকমা জিতেছেন ফ্রান্সের ফ্যাশন টাইকুন বার্নার্ড আর্নল্ট। এখন তিনি ১৮ হাজার ৬৩০ কোটি মার্কিন ডলারেরও বেশি সম্পদের মালিক। শেয়ারের দাম ক্রমাগত বৃদ্ধি ফলে সোমবার সকালে কিছু সময়ের জন্য আর্নল্টের সম্পদের পরিমাণ দাঁড়ায় ১৮ হাজার ৬৩০ কোটি ডলার।

দ্বিতীয় স্থানে থাকা জেফ বেজোসের সম্পদের পরিমাণ ছিল ১৮ হাজার ৬০০ কোটি ডলার। যদিও এক ঘণ্টা পর জেফ বেজোসের সম্পদ বার্নার্ড আর্নল্টের চেয়ে বেড়ে যায়। এদিকে মঙ্গলবার দিনশেষে বার্নার্ড আর্নল্টের সম্পদের পরিমাণ ছিল ১৮ হাজার ৭৬০ কোটি ডলার এবং জেফ বেজোসের ১৮ হাজার ৮২০ কোটি ডলার। খবর ফোর্বস।

ফ্রান্সের ফ্যাশন টাইকুন বার্নার্ড আর্নল্ট ইউরোপের বিলাস পণ্য প্রস্তুত কোম্পানি এলভিএমএইচ গ্রুপের মালিক। বিশ্বের শীর্ষ ব্র্যান্ড লুইস ভিট্টন, মোয়েট, হেননেসে, ফেন্ডি, ক্রিস্টিয়ান ডায়র ও গিভেনচি তারই কোম্পানি। কোভিড মহামারি সত্ত্বেও আর্নল্টের সম্পদের পরিমাণ গত বছর মার্চ থেকে বৃদ্ধি পেয়ে দ্বিগুণ হয়েছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, চীনা গ্রাহকরা এলভিএমএইচ কোম্পানির পণ্য কিনতে শুরু করায় আর্নল্টের কোম্পানির প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধি পেয়েছে। এ বছর প্রথম প্রান্তিকে এলভিএমএইচ রেকর্ড ১ হাজার ৭০০ কোটি ডলার আয় করে, যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ৩২ শতাংশ বেশি।

প্রথম ঘণ্টার লেনদেনে সোমবার এলভিএমএইচের শেয়ারমূল্য বৃদ্ধি পায় শূন্য দশমিক ৪ শতাংশ এবং বাজার মূলধন পৌঁছে ৩২ হাজার কোটি ডলারে। ফোর্বস জানায়, এলভিএমএইচ শুধু ইউরোপীয় বিলাস পণ্য তৈরি গ্রুপ হিসাবে একমাত্র কোম্পানি হিসাবে প্রবৃদ্ধি পায়নি।

ফ্রান্সিস পিনাল্ট, যেটি এলভিএমএইচ কোম্পানির প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী এবং কেরিং গ্রুপের সেন্ট লরেন্ট, আলেক্সান্ডার ম্যাককুইন ও গুচির মতো কোম্পানি গত বছরের বসন্তের পর প্রবৃদ্ধি দ্বিগুণ করতে সমর্থ হয়েছে। এসব কোম্পানির আয় ২ হাজার ৭০০ কোটি থেকে বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৫১০ কোটি ডলারে। এক বছরে চ্যানেল ব্রাদার্স, অ্যালেইন ওয়ের্থেইমার ও গেরার্ড ওয়ের্থেইমারের মতো কোম্পানির আয় ১ হাজার ৭০০ থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ৩ হাজার ৫০০ কোটি ডলারে দাঁড়িয়েছে।