নিউজ ডেস্কঃ নারায়ণগঞ্জের ছয়টি মামলায় আঠারো দিনের রিমান্ডে থাকা হেফাজতে ইসলামের বিলুপ্ত কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক যুগ্ন-মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে নিজ হেফাজতে এনে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ।

মঙ্গলবার (১৮ মে) সকালে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের উদ্দেশ্যে কাশিমপুর কারাগার থেকে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে আনা হয়। এ কারণে সকাল থেকেই জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয় ঘিরে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করে পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম জানান, মামুনুল হকের বিরুদ্ধে দায়ের করা ছয়টি মামলা আলাদাভাবে ছয়জন তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত পরিচালনা করছেন। প্রত্যেক মামলায় আদালত তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করায় তদন্তকারী কর্মকর্তারা পৃথকভাবে তিনদিন করে মামুনুল হককে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারবেন। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে যেসব তথ্য পাওয়া যাবে সেগুলো নথিভুক্ত করে আদালতে উপস্থাপন করা হবে বলে জানান জেলা পুলিশ সুপার।

গত ২৮ মার্চ হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতাল কর্মসূচীতে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সাইনবোর্ড ও সানারপাড়সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে গাড়ি ভাঙচুর অগ্নিসংযোগ করে ব্যাপক সহিংসতা সৃষ্টির ঘটনায় মামুনুল হককে প্রধান আসামি করে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় তিনটি মামলা দায়ের করা হয়।

এরপর ৩ এপ্রিল সোনারগাঁয়ে রয়েল রিসোর্টে তার নারী কেলেঙ্কারি ইস্যুতে হেফাজতের নেতা-কর্মীদের হামলা ভাঙচুর ও নাশকতার ঘটনায় সোনারগাঁ থানায় দায়েরকৃত আরও দুইটি মামলায় মামুনুল হককে প্রধান আসামি করা হয়।

সর্বশেষ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রতারণা ও একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগে গত ৩০ এপ্রিল মামুনুলের বিরুদ্ধে সোনারগাঁ থানায় ধর্ষণ মামলা করেন তার কথিত দ্বিতীয় স্ত্রী জান্নাত আরা ঝর্ণা। এই ছয় মামলায় পুলিশের রিমান্ড আবেদনের প্রেক্ষিতে ভার্চুয়াল শুনানিতে আদালত তিনদিন করে আঠারো দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।