সরকারি গাছ কাটার হিড়িক সিলেটে

প্রকাশিত: ২:৪৬ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২১

সরকারি গাছ কাটার হিড়িক সিলেটে

নিউজ ডেস্কঃসিলেট সদর উপজেলার কান্দিগাঁও বাদেয়ালী গ্রামে অবাধে সরকারি গাছ কাটা হচ্ছে। খবর পেয়ে কেটে রাখা প্রায় ১৪টি গাছ জব্দ করেছে উপজেলা প্রশাসন।

এলাকার বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, একটি ছড়ার পাশে প্রায় আধা কিলোমিটার জুড়ে লাগানো হয় কদম, ফরিস, রেইন্ট্রিসহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছ। কিন্তু গ্রামের কিছু লোক নিজেদের প্রয়োজনে গাছের ডালপালা কেটে নিয়ে যাচ্ছে। এতে গাছগুলো মরে যাচ্ছে। ওই গাছগুলো স্থানীয় রিমুল মিয়া কেটে নিয়ে অন্যত্র বিক্রি করছেন। গত কয়েকদিনে বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ২০টি গাছ কাটা হয়। খবর পেয়ে ১৪টি গাছ জব্দ করে উপজেলা প্রসাশন।

এ ব্যাপারে রিমুল মিয়ার চাচাতো ভাই আব্দুল জব্বার বলেন, ‘কাটা গাছগুলো মধ্যে কয়েকটি গাছ আমাদের সীমানার মধ্যে ছিল। গাছগুলো আমরা লাগিয়েছিলাম। পরে জানতে পারি এটা সরকারি জায়গা। এই বলে তিনি মুঠোফোনের সংযোগ কেটে দেন।’

বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সরেজমিনে দেখা গেছে, ওই ছড়ার প্রায় আধা কিলোমিটার জুড়ে লাগানো বেশির ভাগ গাছের ডালপালা নেই। ডালপালা কাটায় ইতিমধ্যে কয়েকটি গাছ শুকিয়ে গেছে।

বাদেয়ালী গ্রামর কৃষক আব্দুল মুমিন বলেন, যে যেভাবে পারে, সেভাবে গাছগুলো কেটে নিয়ে যাচ্ছে। স্থানীয় কিছু লোক ডালপালা কাটায় গাছগুলো মরে যাচ্ছে। কেউ আবার অন্যত্র বিক্রি করে দিচ্ছে।

জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হুদা বলেন, এসব গাছের মালিক সদর উপজেলা পরিষদ। সংশ্লিষ্টরা অভিযোগ দিলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সিলেট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কাজী মহুয়া মমতাজ বলেন, ‘এসব সরকারি গাছ দেখার দায়িত্ব সবার। গাছ কাটার খবর পেয়ে সহকারি কমিশনারকে (ভূমি) ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছি। কাটা গাছগুলো জব্দ করতে বলেছি।’

এব্যাপারে সহকারি কমিশনারকে (ভূমি) ফারিয়া সুলতানা মুঠোফোনে বলেন, ‘গাছ কাটার বিষয়টি শুনে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে ১৪টি গাছ জব্দ করে স্থানীয় মেম্বারের জিম্মায় রেখে এসেছি।’ পরবর্তীতে সরকারি নিয়ম অনুযায়ী জেলা প্রশাসকের নির্দেশে গাছগুলো নিলামে তোলা হবে।