প্রচ্ছদ

পাকিস্তানের প্রধান নির্বাচকের পদ ছাড়লেন মিসবাহ

www.adarshabarta.com

অনেক আলোচনা-সমালোচনা এবং নানা বিতর্ক শেষে পাকিস্তানের প্রধান নির্বাচকের পদ ছাড়লেন মিসবাহ উল হক। তবে জাতীয় দলের প্রধান কোচের দায়িত্বে বহাল থাকবেন তিনি। আজ (১৪ অক্টোবর) এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রধান নির্বাচকের পদ থেকে সরে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন মিসবাহ।

২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর থেকে পাকিস্তানের প্রধান কোচ ও প্রধান নির্বাচক হিসেবে দায়িত্ব পালন শুরু করেন জাতীয় দলের সাবেক এই অধিনায়ক। তবে ২০২০ সালের জুলাইয়ে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের গঠন করা নতুন কোড অব কন্ডাক্টে একই ব্যক্তির দ্বৈত ভূমিকায় থাকা বাতিল করা হয়েছে।

 

কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট বা স্বার্থের সংঘাতের বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে পিসিবি ঠিক করেছে, পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) বা পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) সাথে সংশ্লিষ্ট কেউই নতুন নিয়ম অনুযায়ী বোর্ড বা পিএসএলের একাধিক পদ বা দায়িত্বে থাকতে পারবেন না। ফলে মিসবাহর দুই পদে থাকা প্রশ্নের মুখে পড়ছিল। একই সঙ্গে কোচ ও নির্বাচকের দ্বৈত ভূমিকায় কতটা সফল মিসবাহ- এই প্রশ্নও সামনে চলে আসছিল।

এসব নিয়ে মিসবাহর সামনে অনেক বেশি চাপ ছিল বলে জানিয়েছেন জাতীয় দলের এই সাবেক অধিনায়ক নিজেই। আর তাই প্রধান নির্বাচকের পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

এদিকে জাতীয় দলের ব্যর্থতার জন্য বিভিন্ন সময় কাঠগড়ায় চলে আসছিলেন মিসবাহ। এমনকি দল নিয়ে পরীক্ষায় মিসবাহর ‘বাড়াবাড়ি’ তে অসন্তুষ্ট ছিলেন বোর্ডের অনেক কর্তাব্যক্তিই। এমনকি দেশটির অনেক সাবেক ক্রিকেটার মিসবাহর দুই পদ নিয়ে সমালোচনা করছিল বারবার।

এদিকে মিসবাহ পিএসএলে ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের প্রধান কোচ হিসেবেও কাজ করছিলেন। পিসিবির করা নতুন নিয়মের কারণে জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক পদের সঙ্গে ইসলামাবাদের কোচিংও ছাড়তে হবে তাকে।